Storybaaz ,social media for writers
চিঠি
Atrayee Bhowmick

চিঠি

আজকাল খুব চিঠি লিখতে ইচ্ছে হয়,উড়োচিঠি।আবোল তাবোল লিখে উড়োজাহাজ ভেবে উড়িয়ে দেবো।যার উঠানে গিয়ে পড়বে,চিঠি তাঁর।ভীড় বাসে বসে ,ওই প্রথম সীটে বসা ছেলেটাকে চিঠি লিখতে ইচ্ছে করে।রেশমের মতো চুল,চিবুকের কাছের ছোট্ট দাড়ি,মায়া মায়া চোখ।এ ছেলে সেই ছেলে না হয়ে যায় না।এর জন্য রোজ একটা চিঠি লেখা যায়।এই এত্তখানি দূরে বসেও চমৎকার আফটারশেভের গন্ধ পাই।গন্ধে মাতাল হয়ে আমি লিখবো,'হে সুন্দর পুরুষ তোমার পাশে বসতে দিও একদিন।

খানিকটা রাস্তা তোমার পাশে বসে যাবো।তোমার মোবাইল স্ক্রিনে উঁকি দিয়ে দেখবো কি গান শুনছো'।প্রেয়সী আছে হয়তো।তুমি লিখবে 'আসছি'।আমি ভাববো কোনো অভিজাত রেস্তরাঁয় সুন্দরী তন্বী প্রেমিকা অপেক্ষায় আছে তোমার।আমি হিংসে করিনি।ওরসাথে বেশ মানায় তোমায়।এলোমেলো অবাধ্য চুল ডানচোখ প্রায় ঢেকে দিয়েছে তোমার,নরম চোখ।চওড়া কাঁধের পেশীগুলো সজাগ কেমন।মুগ্ধদৃষ্টিতে দেখবো খানিক।আমার চিঠি হয়তো পড়বেনা তুমি।তাও লিখবো।ঘন্টার পর ঘন্টা দেশবিদেশের ছবি নিয়ে গল্প করবো।সিনেমা তুমিও ভালোবাসো জানি।টিশার্টের বুকজুড়ে লেখা 'ব্যাটেলশিপ পোটেমকিন'।এ ছেলে সেই ছেলে না হয়ে যায়না।

রেস্তরাঁর মায়াবী আলোয় ঘন্টাখানেক বসবো তোমার সাথে এক টেবিলে।তোমার গায়ে কেমন উচ্চবিত্ত মানুষের মতো গন্ধ।কিন্তু উগ্র নয়,স্নিগ্ধ।জঙ্গল পাহাড়ে একটা গোটা দিন কাটাবো তোমার সাথে।কমলা ছিঁড়ে খাবো দুজনায়,বাঁধভাঙা নদীর জলে পা ভেজাবো একসাথে,ভরা পূর্ণিমায় সারারাত বসে ময়ূর ময়ূরীর পেখম মেলা দেখবো।তোমার মুখের ডানপাশটা বিকালের শেষ আলো পড়ে কেমন ঝলসে মতো গেছে।উইন্ডো সীটের জোরালো হাওয়ায় চুল উড়ছে তিরতির করে।কার কথা ভাবছো তুমি এত?মোবাইল স্ক্রিনের দিকে একমনে তাকিয়ে আলতো একটা লাজুক হাসি খেলছে ঠোঁটের গোড়ায়।বেশ লাগছে দেখতে।এই সব কিছু লিখবো তোমায় চিঠিতে।সব ভালোলাগা,খারাপ লাগা খামের ভেতর বন্দী করে উড়িয়ে দেবো।চিঠি লেখার মানুষ পাওয়া খুব কঠিন,যেদিন পাবো সেদিন রাতজেগে দিস্তা দিস্তা কাগজ শেষ করবো।সে হয়তো পড়বেনা,জানবেনা কে করলো এসব পাগলামি।তাও লিখবো চিঠি,রোজ একখানা।

keyboard_arrow_up

© 2018 Storybaaz All rights reserved.